Graphics Design and Freelancing Career

dsc_0893অনেকদিন যাবত গ্রাফিক ডিজাইন নিয়ে ফ্রীল্যান্সিং করছি।কিছু ক্লায়েন্ট আছে যারা আমাকে নিয়মিত কাজ দেয় । যা আমাকে কাজের ব্যাপারে আরও অনেক বেশি উৎসাহিত করে ।আর সেই ক্লায়েন্টদের থেকে একজন ক্লায়েন্ট এর কাজের কিছু অর্ডার শেয়ার করলাম । যারা Freelancing এ নতুন তারা হয়ত কিছুটা অনুপ্রেরনা পাবে। আর বাকিদের কাছে আমি দোয়াপ্রার্থী যেন এভাবেই সফলতার সাথে আমি এগিয়ে যেতে পারি।

উত্তরা ইনফোটেক (Uttara Info Tech) এর সকল শিক্ষকবৃন্দ কে ধন্যবাদ, সব সময় পাশে থেকে উৎসাহ ও আন্তরিক সহযোগিতা করার জন্য।

ফ্রীল্যান্সিং নিয়ে কোনো পরামর্শ জানতে চাইলে কমেন্ট করুন ।

02-11-16

আউটসোর্সিং / ফ্রীল্যান্সিং-ই আমার জীবন বদলে দিয়েছে : মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিল মজুমদার

আউটসোর্সিং / ফ্রীল্যান্সিং-ই আমার জীবন বদলে দিয়েছে  :  মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিল মজুমদার

ibrahim-upwork

বর্তমান তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে অন্যতম সৃজনশীল পেশার নাম হচ্ছে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। ওয়েব দুনিয়ায় শত শত ওয়েবসাইট এবং নানান রকম ওয়েব ডিজাইন এর মাধ্যমে নিজ নিজ সৃজনশীলতার পরিচয় তুলে ধরছে আজ প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইনারগণ। আপনি যদি সৃজনশীল কিছু করতে চান বা সৃজনশীল কাজ করতে বেশি ভালবাসেন তবে ওয়েব ডিজাইনিং হবে আপনার জন্য সর্ব উত্তম পেশা। প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইনার বর্তমান সময়ের অন্যতম লোভনীয় প্রফেশন। একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইনার এর কাজের ক্ষেত্র অনেক বিস্তৃত। কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান গুলোতে প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইনার হিসাবে চাকুরির পাশাপাশি ঘরে বসে ফ্রিল্যান্সিংও করার সুযোগ রয়েছে। তাই দিনদিন ওয়েব ডিজাইনিং কিংবা ওয়েব ডিজাইন -এর চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। উত্তরা ইনফোটেক দক্ষ ও প্রফেশনাল প্রশিক্ষক দ্বারা আন্তরিকতার সহিত ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ শিখিয়ে থাকেন।

বর্তমান তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে আউটসোর্সিং করে অনেকেই নিজের ভাগ্য পরিবর্তন করছে। আপনি যদি সৃজনশীল কিছু করতে চান বা সৃজনশীল কাজ করতে বেশি ভালবাসেন তবে ফ্রীল্যান্সিং-ই হউক আপনার জন্য সর্ব উত্তম পেশা। দেশকে বেকার সমস্যা দূর করতে দেশের বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের সাথে উত্তরা ইনফোটেক’ও সমান ধারায় আইটি আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। সেই আন্দোলনে শরিক হয়ে অনেকেই বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্ত হয়ে নিজের  ভাগ্যকে পুরোপুরি বদলে দিয়েছেন।

২০১১ সাল থেকে উত্তরা ইনফোটেক যাত্রা শুরু করে প্রায় ৫০০ প্রশিক্ষিত সুদক্ষ যুবককে আইটি জগতে ক্যারিয়ার গড়তে সহযোগিতা করেছে। যাদের অনেকেই বর্তমানে আইটি পেশায় নিজের ক্যারিয়ার প্রতিষ্ঠিত করেছে। উত্তরা ইনফোটেক থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়া অনেকের মধ্যে আমিও একজন।

সোলানী ভবিষৎতের কথা চিন্তা করে আমি আইটি সেক্টরের মাধ্যমে ডিজিটাল ক্যারিয়ার গড়ব বলে সিদ্ধান্ত ২০১২ সালে। তখন ভাল মানের আইটি প্রতিষ্ঠান তেমন ছিল না। আমি আমার বন্ধুদের মাধ্যমে উত্তরা ইনফোটেক সম্পর্কে জানতে পারি। পরে এই প্রতিষ্ঠানে এসে আইটি ক্যারিয়ার সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে পারি। উত্তরা ইনফোটেক এর পরিবেশ, প্রশিক্ষণ প্রদানের দক্ষতা ও প্রশিক্ষণ পরিবর্তী সহযোগিতার কথা জানতে পেরে নিজেকে এই প্রতিষ্ঠানের একজন ছাত্র হিসাবে যুক্ত করি এবং উত্তরা ইনফোটেক এ প্রশিক্ষন নিয়ে নিজেকে একজন দক্ষ ফ্রীল্যান্সার হিসাবে তৈরী করতে সমর্থ হই।

বর্তমানে আমি বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ করি। প্রতিদিন প্রায় আট ঘণ্টা সময় ব্যয় করে আমি প্রতি মাসে গড়ে প্রায় ৭৫,০০০ টাকা বা তারও বেশি আয় করি। তবে যে যত বেশি সময় দিতে পারবে সে তত বেশি আয় করতে পারবে। দেশে বসে বিদেশি ডলার আয় করতে বেশ ভালই লাগে। এই সেক্টরে কাজ করতে এসে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মূখীন হয়েছি, সেক্ষেত্রে উত্তরা ইনফোটেক থেকে আমি সব সময় সহযোগিতা পেয়েছি, এখনও পাচ্ছি।

নতুনদের উদ্দেশ্যে বলছি আইটি সেক্টরে আসতে নিজের ইচ্ছা শক্তি ও কম্পিউটার সম্পর্কে জ্ঞান থাকলেই যে কেউ আইটি বিষয়ে কাজ শিখে অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে পারবে।

পরিশেষে আমি গর্বের সাথে বলছি, উত্তরা ইনফোটেকই আমার ভাগ্য পরিবর্তন করেছে আমি উত্তরা ইনফোটেক ও উত্তরা ইনফোটেক এর সকল প্রশিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ’কে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

client-feedback

জুন মাসের ১০০০ ডলার ক্যাশ করলাম Up Work (Odesk) থেকে : ফ্রিল্যান্সার – ওমর সানি

মহান আল্লাহর কাছে অশেষ কৃতজ্ঞ জুন মাসের ১০০০ ডলার ক্যাশ করলাম Up Work (Odesk) থেকে

ফ্রিল্যান্সিং কাজ করি আজ প্রায় দীর্ঘ ৫ বছর। দীর্ঘ দিন ধরে কাজ করলেও কখনো কোন দিন ফেসবুক এ কোন স্টাটাস দেই নি। কিন্তু ইদানিং অনেক ফ্রিল্যান্সাররাই তাদের আয় সম্পর্কে ফেসবুকে স্টাটাস দিচ্ছে। বিষয়টি আমাকে খুবই উৎসাহিত করল। আসলে আমরা যারা ফ্রিল্যান্সিং করি আমদের অনুভূতি গুলো যদি জনসম্মুখে প্রকাশ করি তাহলে অনেক নুতন ফ্রিল্যান্সারগণ উৎসাহিত হবেন এবং আরো বেশী পরিশ্রম করার জন্য মনোযোগী হবেন।

অন্যদিকে যারা নতুনভাবে ফ্রীল্যান্সিং এ আসতে চা্চ্ছে, তারাও আরো বেশী উৎসাহিত হবে। এতে করে আমাদের দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার অনেক উন্নতি হবে এবং দেশের বেকার সমস্যার একটি সুন্দর সমাধান হবে। অবাক হবার কিছুই নেই। দেশের প্রায় ৬ লক্ষ শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতী ফ্রিল্যান্সিং করে তাদের জীবিকা নির্বাহ করছে। তাদের পরিবারের দরিদ্র দূরীকরণে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে।

আমি একজন অতি নগন্য ফ্রিল্যান্সার যার মাসিক গড় আয় ৫৬১.৭৫ ডলার। গত ১ বছরের আয় করেছি ৬,৭৪১ ডলার। তার মধ্যে গত মাসে আয় হয়েছে ১,০০০ ডলার। আমার এই সফলতার পেছনে সবচেয়ে বেশী অবদান যার তিনি হলেন উত্তরা ইনফোটেক এর মো: সাইদুল ইসলাম ভাই।

আমি তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমার ফ্রিল্যান্সিং জীবনের প্রায় প্রতিটি ধাপেই যেখানে সমস্যার সম্মুখীন হয়েছি সেখানেই তিনি তার নিজের কাজ মনে করে আমাকে উৎসাহিত করেছেন, বিভিন্ন ভাবে পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন। আজ আমি সাইদুল ভাই ও উত্তরা ইনফোটেকের সফলতা কামনা করছি।

Outsourcing-Training-Online-freelancing-training-online-earning-training-online-income-training-center-in-uttara-dhaka-bangladesh (2po)