স্টুডেন্ট অবস্থায় স্মার্ট ক্যারিয়ার

লেখাপড়া শেষ করে নয়, আয় শুরু হোক স্টুডেন্ট অবস্থায়। কিছু শর্ট কোর্স যা অনলাইনে এবং বিভিন্ন কোম্পানিতে পার্ট-টাইম কাজ করার সুযোগ সৃষ্টি করে এবং এসব কাজ করে সহজেই প্রতি মাসে ১০,০০০-২০,০০০ টাকা আয় করা সম্ভব।
.
কি কি কোর্স করবেন?
◙ Graphics Design
◙ Web Design & Development
◙ Search Engine Optimization

কোর্সের নাম : গ্রাফিক ডিজাইন।
কোর্সের মেয়াদ : ২ মাস।

স্মার্ট ক্যারিয়ারের স্বপ্ন দেখেন এমন সবার জন্য উত্তরাইনফোটেক এর স্মার্ট অফার।
কোর্স ফিঃ ৮৫০০ টাকা। ভর্তির সময় দিতে হবে ৫০% বাকি ৫০% পরিশোধ করবেন পরবর্তী ১ মাসের মধ্যে ।

আমাদের অফিসের ঠিকানা:
৮৭, বিএনএস সেন্টার, ৬ষ্ঠ তলা (রুম নং# ৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
হ্যালো : ০১৯৭০ ৯০০ ৯৩৩, ০১৬১১ ৯০০ ৯৩৩
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: www.uttarainfotech.com

অথবা
নন্দীভবন – (৩য় তলা),
(ইসলামী ব্যাংক সংলগ্ন),
চন্দনা চৌরাস্তা, জয়দেবপুর, গাজীপুর।
হ্যালো : ০১৯৭৩ ৯০০ ৯৩৩,০১৯৭৫ ৯০০ ৯৩৩
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: www.uit.com.bd

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ৩০% ছাড়ে ভর্তি চলছে Eid Special Offer 30% Off – Admission Going on

 

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ৩০% ছাড়ে

– Professional Outsourcing
– Professional Web Design & Development
– Professional Graphics Design and
– Advance SEO / Search Engine Marketing

কোর্সে ভর্তি চলছে ,

ভর্তি চলবে ২৬ রমজান পর্যন্ত

যোগাযোগ:

উত্তরা ইনফোটেক

উত্তরা – ০১৯৭০ ৯০০ ৯৩৩, ০১৬১১ ৯০০ ৯৩৩

গাজীপুর – ০১৯৭৩ ৯০০ ৯৩৩, ০১৯৭৫ ৯০০ ৯৩৩

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: www.uit.com.bd

শুধু মাত্র এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের জন্য ২০% ছাড়ে ভর্তি চলছে

 

কোর্স শুরু : ২০/০৩/২০১৭ ইং

ভর্তি চলবে : ১৯/০৩/২০১৭ ইং পর্যন্ত

শুধু মাত্র এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের জন্য ২০% ছাড়ে ভর্তি চলছে। বর্তমান সময়ে ছাত্র/ছাত্রীদের কাছে আউটসোর্সিং হচ্ছে একটি অন্যতম লোভনীয় পেশা। পড়াশুনার পাশাপাশি কোন কাজ করে আয় করার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে বেশী জনপ্রিয় পেশা হলো আউটসোর্সিং। এই কাজ করার জন্য তাদের নিদিষ্ট কোন সময় এ প্রয়োজন হয়না।এটি হচ্ছে একটি মুক্ত পেশা।তাই আউটসোসিং এর কাজ কে ছাত্র/ছাত্রীরা আগ্রহের সাথে বেশী ঝুঁকছে। ইন্টারনেটের কল্যাণে এখন আপনি খুব সহজেই একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারেন। এখানে একদিকে যেরকম রয়েছে যখন ইচ্ছা তখন কাজ করার স্বাধীনতা, তেমনি রয়েছে কাজের ধরন বাছাই করার স্বাধীনতা। আয়ের দিক থেকেও অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং এ রয়েছে অভাবনীয় সম্ভাবনা। এখানে নতুন নতুন কাজ আসছে।
আপনি কাজ করবেন, আউটসোর্সিং বা ফ্রীল্যান্সিং করবেন , কি ভাবে করবেন কিন্তু কাজ পারেন না, তাহলে কি ভাবে হবে? এ নিয়ে চিন্তা করছেন? কোথায় ভর্তি হবেন এই নিয়ে চিন্তা করছেন? “উত্তরা ইনফোটেক” শুধু মাত্র এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের জন্য ২০% ছাড়ে ভর্তির সুযোগ দিয়েছে ।পরীক্ষা শেষ করার পর যাতে সময়টুকু কাজে লাগে সেজন্য আপনি করতে পারেন এই কোর্সাটি।

যেকোনো পরামর্শের জন্য আমাদের সাথে কথা বলতে পারেন।

আমাদের সাথে যোগাযোগ
৮৭, বিএনএস সেন্টার,
৬ষ্ঠ তলা(রুম নং# ৬১০/এ, এবং ৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
হ্যালো : ০১৯৩৫ ৯০০ ৯৩৩

অথবা
নন্দী ভবন (৩য় তলা), (ইসলামী ব্যাংক এর পশ্চমি পার্শ্বে),
চন্দনা চৌরাস্তা, জয়দেবপুর, গাজীপুর।
হ্যালো : ০১৯৩৫ ৯০০ ৯৩৩
ফেসবুক :
https://www.facebook.com/uttarainfotech/
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন :
www.uit.com.bd, www.uttarainfotech.com

======== সফটওয়্যার ==========

ব্যবসার একটা গুরুত্ব পূর্ণ উপাদান হল টাকা। আমাদের দেশের ব্যবসায়ীরা হাতে কলমে সে টাকার হিসাব রাখতে অভ্যস্ত। আর হাতে কলমে হিসাব রাখতে গিয়ে অনেক সময় লোকসান গুনতে হয়। পৃথিবীর উন্নত সব দেশে ব্যবসার সব হিসাব নিকাশ সফটওয়্যার এর মাধ্যমে রাখে কারন মানুষের ভুল হতে পারে কিন্তু ভাল সফটওয়্যার এর ভুল হতে পারে না।

সফটওয়ার হল কোনো  আয় ব্যয় বা আপনার প্রতিষ্ঠানের যেকোনো প্রকার হিসেব রাখার ব্যবস্থা। প্রয়োজন অনুযায়ী রিপোর্ট বের করা ।

সফটওয়ারটি ব্যবহারের ফলে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হবে আরো আধুনিক, ডিজিটাল ।

সফটওয়্যার দিয়ে কি কি করতে পারেন ও এতে আপনার কি কি লাভ হবেঃ

  1. সফটওয়্যার আপনার মূল্যবান সময় যেমন বাঁচিয়ে দিবে, তেমনি আপনার খরচ অনেক কমিয়ে দিবে।
  2. ব্যবসার হিসাব-নিকাশ রক্ষার জন্য রেজিস্টার বুক, ওয়ার্ক অর্ডার বুক, ইনভয়েস বুক, বা অন্যান্য হিসাবের খাতা নিয়ে আর মূল্যবান সময় নষ্ট করার দরকার নেই।
  3. আপনার সব হিসাব-নিকাশ রক্ষা করবে সফটওয়্যার। সুতরাং হাতে-কলমে কাজ করতে গিয়ে আপনার যে ভুল হওয়ার আশংকা ছিল, সফটওয়্যার ব্যবহারে তা আর থাকছে না।
  4. আপনি যে কোন ক্যাটাগরি অনুসারে আপনার ব্যবসার রিপোর্ট গুলো জানতে পারবেন।
  5. কোন প্রোডাক্ট গুলোর এক্সপায়ারি ডেট দ্রুত শেষ হবে তাও আপনি জানতে পারবেন। কাজেই আপনি সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন, আপনার কোন প্রোডাক্ট এর স্টক বাড়ানো উচিৎ আর কোন প্রোডাক্ট দ্রুত বিক্রি করে দেয়া উচিৎ।
  6. আপনার ব্যবসার গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট গুলো হারিয়ে যাওয়ার কোন ভয় থাকছে না। সবকিছু জমা থাকবে সফটওয়্যারে। চাহিদামত সার্চ দিয়ে মুহূর্তেই বের করে নিন প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট।
  7. যে টাকা খরচ করছেন সেই সব টাকার ফিড ব্যাক কেমন।
  8. আপনার ইনভেন্টরির কি অবস্থা। সাপ্লাইয়ারদের সাথে লেনদেন এর কি অবস্থা?

ব্যবসায়ীক সফটওয়্যার ব্যবহার এর ফলে আপনি যেমন এই ব্যাপারগুলো পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন তেমনি পাশাপাশি আপনি আপনার কর্মপরিকল্পনা ঠিক করতে পারবেন।

যদি কোন সফটওয়্যার করেন তবে সেটা হবে আপনার ব্যবসার জন্য খুবি ভাল। সুতরাং আপনার ব্যবসার জন্য সফটওয়্যার ডেভেলপ করেতে গেলে একটা ভাল ও অভিজ্ঞ আই.টি ফার্ম থেকে করানো ভাল। কারন এতে করে সাপোর্ট ভাল পাওয়া যাবে। সফটওয়্যার নেওয়াই শেষ না। এটাই আমাদের ভুল ধারনা। সফটওয়্যার এর সাপোর্টও অনেক গুরুত্ব পূর্ণ। কোন সমস্যা হলে সমস্যার সমাধান ও পেতে হবে। ভাল বিশ্বস্ত কোন আই.টি ফার্ম থেকে কাজ করালে ভবিষ্যৎ-এ ভাল হবে। অভিজ্ঞ আই.টি ফার্ম গুলোর অন্যতম হল “উত্তরা ইনফোটেক” ।

যেকোনো পরামর্শের জন্য আমাদের সাথে কথা বলতে পারেন।

আমাদের সাথে যোগাযোগ

৮৭, বিএনএস সেন্টার,
৬ষ্ঠ তলা (রুম নং# ৬১০/এ, এবং ৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
হ্যালো : ০১৯৩৫ ৯০০ ৯৩৩

 

স্পেশাল ডিসকাউন্ট অফার!!! ডোমেইন + ১ জিবি হোস্টিং

স্পেশাল অফার!!!

“উত্তরা ইনফোটেক” স্বাধীনতার মাসে দিচ্ছে স্পেশাল অফার। ১টি(একটি) ডট কম ডোমেইন এবং ১ জিবি হোস্টিং ১০ জিবি ব্যান্ডউইথসহ পাচ্ছেন মাত্র ১,৭৯৯/-  টাকায়।

কি কি পাচ্ছেন এই প্যাকেজের সাথে

  • ১ টি ডট কম ডোমেইন
  • ১ জিবি হোস্টিং
  • ১০ জিবি ব্যান্ডউইথ
  • ১০ টি ইমেইল একাউন্ট
  • ওয়ান ক্লিক সিএমএস ইনস্টলেশন সুবিধা
  • সি-প্যানেল এক্সেস
  • ২৪/৭ সার্পোট সুবিধা

আমাদের সাথে যোগাযোগ

৮৭, বিএনএস সেন্টার, ৬ষ্ঠ তলা (রুম নং# ৬১০/এ, এবং ৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।

হ্যালো : ০১৯৩৫ ৯০০ ৯৩৩

অথবা

নন্দী ভবন (৩য় তলা), (ইসলামী ব্যাংক এর পশ্চমি পার্শ্বে),
চন্দনা চৌরাস্তা, জয়দেবপুর, গাজীপুর।

হ্যালো : ০১৯৩৫ ৯০০ ৯৩৩

ফেসবুক গ্রুপ :
https://www.facebook.com/uttarainfotech/

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন :
www.uit.com.bdwww.uttarainfotech.com

অনলাইন আউটসোর্সিং এর উপর ফ্রি সেমিনার Online Outsourcing Training Free Seminar at Uttara Info Tech, Gazipur Branch

অনলাইন আউটসোর্সিং এর উপর ফ্রি সেমিনারটি আজ আমাদের গাজীপুর ব্রাঞ্চ এ সফল ভাবে সম্পন্ন করেছি। এজন্য সবাই কে অান্তরিকভাবে ধন্যবাদ।

আগামি ৩রা মার্চ ২০১৭ইং শুক্রবার বিকাল ৩ – ৬ ঘটিকা পর্যন্ত আমাদের পরবর্তী ফ্রি সেমিনারের আয়োজন করা হবে।

চোখ রাখুন আমাদের ফেইসবুক পেইজ এ
https://www.facebook.com/freelancingtrainingingazipur

Outsourcing – Earn from Theme Forest; Professional Course Graphics to PSD & PSD to HTML

 

Outsourcing – Earn from Theme Forest;

Professional Course

Graphics to PSD & PSD to HTML

বাংলাদেশের ইয়াং জেনারেশন থেকে শুরু করে বয়সী মানুষরাও অনলাইন ক্যারিয়ারে প্রবেশ করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা দেশে আনতে সক্ষম হচ্ছেন। দিন দিন অনলাইনে আয়ের প্রতি মানুষের প্রচুর চাহিদাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। অনলাইনে আয় সংক্রান্ত বিষয়ে সবাই প্রচুর আগ্রহী হয়ে উঠছে ঠিকই কিন্তু সঠিক গাইড লাইন এবং দক্ষতার অভাবে অনেকেই ঝড়ে যাচ্ছেন।

আমাদের আছে বাস্তবভিত্তিক কাজ করেন এমন ট্রেইনার। তাই আমরা নিশ্চয়তা দিতে পারি আপনার দক্ষতা উন্নয়নে সঠিকভাবে সহযোগীতা করতে পারবো এবং যারা ট্রেইনার হিসেবে থাকবেন তারা সবাই থিমফরেস্ট বেইজড কাজ করেন।

ফ্রিলান্স মার্কেটপ্লেসে ওয়েব ডিজাইন এবং ফ্রন্ট-ইন্ড-ওয়েব ডেভেলপমেন্টের হাজারো কাজ পাওয়া যায় এবং এ কাজে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তুলনামূলক কম তবে চাহিদা বেশি। তাই সহজে কাজ পাবেন এবং এধরনের কাজের দামও বেশি। একজন সাধারন মানের ফ্রিলান্সারের ঘণ্টাপ্রতি কাজ করার রেট হয় ২ থেকে ৩ ডলার, কিন্তু একজন ওয়েব ডিজাইনার এর ঘণ্টাপ্রতি রেট শুরুতেই ১০ থেকে ১২ ডলার হয়ে থাকে। আজকাল ওয়েব ডিজাইন বা ডেভেলপমেন্ট শিখলে শুধু ফ্রিল্যান্সিং করা যায় এমনটা নয়, অনেক মার্কেট আছে যেখানে ওয়েব টেম্পলেট এবং ওয়েব এপ্লিকেশন খুবই ভালো দামে বিক্রি করা যায়। এমনি একটা মার্কেটপ্লেস হচ্ছে ‘themeforest.net’। এখানে আপনি আপনার একটি ডিজাইন করা টেম্পলেট একাধিকবার বিক্রি করতে পারবেন এবং ভালো কোয়ালিটির টেম্পলেট হলে প্রতিমাসে একটা টেম্পলেট দিয়েই আপনি প্রচুর আয় করতে পারেন।

গত প্রায় ৫ বছর যাবৎ আমাদের আইটি সার্ভিসের পাশাপাশি আমরা অনলাইন আয় সংক্রান্ত বেশ কিছু কোর্স পরিচালনা করে আসছি। আমাদের দিক-নির্দেশনা ও প্রশিক্ষণে অনেক নতুনরা দক্ষ হয়ে বিভিন্নভাবে কাজ করে ভাল আয়ের পাশাপাশি সুনামও অর্জন করে যাচ্ছে।

আপনি নতুন হলে সব থেকে ভালপন্থা সময় করে একদিন অফিসে এসে জেনে নিন কিভাবে, কোনটা দিয়ে শুরু করলে আপনি সত্যিকারের দক্ষতা অর্জন করে আয় করতে পারবেন। হুট করে শুরু না করে একটু বিচারবুদ্ধি দিয়ে ভেবেচিন্তে শুরু করুন।

আমাদের অফিসের ঠিকানা:
৮৭, বিএনএস সেন্টার,
৬ষ্ঠ তলা (রুম নং# ৬১০/এ, এবং ৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
হ্যালো : ০১৯৭০ ৯০০ ৯৩৩
ফেসবুক: www.facebook.com/uttarainfotech
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: www.uit.com.bd

২০% ছাড়ে আউটসোর্সিং এ ভর্তি চলছে

ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফলতার জন্য টাকার লোভ ত্যাগ করে কাজে দক্ষতা অর্জনের দিকে বেশি নজর দিতে হবে। দক্ষলোকদের সমাদর সবজায়গার মতই ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রে। সেজন্য সবার প্রথমে বিভিন্ন রিসোর্স থেকে কাজ শিখে সেগুলোর বাস্তবভিত্তিক কাজ করে দক্ষতা অর্জন করলেই অনলাইনে কাজের রেট এবং চাহিদা দুটি বৃদ্ধি পাবে। এরকম চাহিদাপূর্ণ অবস্থানে আসার জন্য অবশ্যই কিছুটা সময় দিতে হবে। মনে রাখবেন, অদক্ষ ব্যক্তিদের টাকার পিছনে দৌড়াতে হয়। কিন্তু দক্ষ ব্যক্তিদের পিছনে টাকা দৌড়ায়।

যে কোন কাজের সফলতার জন্য যেমন সবার প্রথমে দরকার ইচ্ছাশক্তি, ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রেও বিষয়টা ব্যতিক্রম না। প্রচন্ড ইচ্ছাশক্তি থাকলে ফ্রিল্যান্সিংয়ের সফল হওয়ার ব্যাপারে যত প্রস্তুতিমূলক পরিশ্রম করা দরকার, সব কিছু করতে আগ্রহ থাকবে। সুতরাং কারও কথা শুনে হালকাভাবে লক্ষ্য নিয়ে নামলে ব্যর্থ হওয়ার সম্ভাবনাটা ৯৫%। কিন্তু যদি নিজের তীব্র ইচ্ছা থাকে এবং একাগ্রতা থাকে, তাহলেই ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফল হবেন।

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে ধৈয্য শক্তি বাড়িয়ে নেওয়া উচিত। কাজ শিখতেও ধৈয্য নিয়ে শিখতে হবে। পরে শুরুতে কাজ পাওয়ার জন্য বহুদিন ধৈয্য সহকারে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয়। এমন হতে পারে, কাজ শিখার পর ১ম কাজের অর্ডার পেতে ১বছরও লেগে যেতে পারে। কিন্তু তারপরও ধৈয্য হারালে চলবেনা। চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে, নিজেকে দক্ষ করতে হবে, বায়ারের কাছে কাজ চাওয়ার ধরনে পরিবর্তন এনে দেখা যেতে পারে। হতাশ না হয়ে কাজ পাওয়ার ব্যাপারে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।

সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে উপরের বিষয়গুলো নিজের ভিতরে নিয়ে আসার চেষ্টা শুরু করে দিতে হবে। আন্তর্জাতিকবাজারে টিকে থাকার চ্যালেঞ্জে জিততে হলে নিজের মধ্যে বিশেষ কিছু থাকতেই হবে। কাজের দক্ষতার পাশাপাশি অধ্যাবসায়, ধৈয্য এবং নতুন কিছু শিখার নেশা সফলদের কাতারে পৌছিয়ে দিবে।

আমাদেরঅফিসেরঠিকানা:
৮৭, বিএনএসসেন্টার, ৬ষ্ঠতলা(রুমনং-৬১০/এ, এবং৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
হ্যালো :০১৯৩৫৯০০৯৩৩, ০১৬১১৯০০৯৩৩
বিস্তারিতজানতেভিজিটকরুন: www.uttarainfotech.com
অথবা
নন্দীভবন – (৩য়তলা),
(ইসলামীব্যাংকসংলগ্ন, গাজীপুরইঞ্জিনিয়ারিংইনষ্টিটিউটএরপাশের বিল্ডিং),
চন্দনাচৌরাস্তা, জয়দেবপুর, গাজীপুর।
হ্যালো :০১৯৭৩৯০০৯৩৩
বিস্তারিতজানতেভিজিটকরুন: www.uit.com.bd
হ্যালোঃ ০১৯৭৩৯০০৯৩৩ , পেইজঃhttps://www.facebook.com/freelancingtrainingingazipur/ , ,
ইউটিউব
ইমেইলঃ admin@uttarainfotech.com ,

ফ্রিল্যান্সার কাজ শিখুন ঘরে বসে আয় করুন.

 

15284160_615382148646030_6770066621230128559_n

 

বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং/আউটসোরসিং এর নাম শোনেনি এমন মানুষ খুব কমই আছেন। আমরা সবাই জানি বর্তমান প্রতিযোগিতার এই যুগে চাকরীর বাজার কতোটা কঠিন।
লাখ লাখ বেকার ছেলে-মেয়ে স্নাতক/স্নাতকত্তর ডিগ্রি শেষ করে চাকরীর আশায় বসে আছেন কিন্তু চাকরী পাচ্ছেন না। এই অস্থিতিশীল চাকরীর বাজারে রেসের ঘোড়ার মত না দৌড়িয়ে বর্তমান তরুণ প্রজন্ম বেছে নিয়েছে ফ্রিল্যান্সারকে তাদের পেশা হিসেবে।
আমাদের দেশের হাজার হাজার ছেলে-মেয়ে এখন এই মুক্ত পেশার সাথে জড়িত। এই মুক্ত পেশার মাধ্যমে তারা হচ্ছেন সচ্ছল, পূরণ করছেন তাদের মৌলিক চাহিদা, অর্থনৈতিক ভাবে হচ্ছেন স্বাবলম্বী। দেশি বিদেশী নামকরা প্রতিষ্ঠানে করছেন সন্মানজনক বেতনের চাকরি, আবার কেউ কেউ দিয়েছেন নিজের স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান।
প্রথমেই জেনে নেওয়া যাক ফ্রিল্যান্সিং/আউটসোরসিং কি?
ফ্রিল্যান্সিং মানে হচ্ছে একটি মুক্ত পেশা যার মাধ্যমে একজন মানুষ স্বাধীনভাবে তার কাজ গুলো করতে পারে। আউটসোরসিং কে সোজা বাংলা ভাষায় বলতে গেলে বলতে হয়, কোনো শ্রম বা মেধাকে কাজে লাগিয়ে সেবা বা পণ্য বিক্রি করে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করা।
আপনি কি পারবেন একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে?
অবশ্যই!!! আপনার যদি ইচ্ছাশক্তি, মনোবল থাকে তাহলে আপনি অবশ্যই পারবেন। দরকার শুধু সঠিক গাইডলাইন। সঠিক গাইডলাইনের অভাবে অনেকের ফ্রিল্যান্সিং জীবন শুরুর আগেই শেষ হয়ে যায়। আবার অনেকে শুরুর পর ঝরে যায়। আপনাদের সঠিক গাইডলাইন এবং ফ্রিল্যান্সিং বাজার গুলোর জন্য উপযুক্ত করে গড়ে তোলার জন্য অন্যতম উওরা ইনফোটেক।
প্রফেশনাল গ্রাফিক ডিজাইনঃ
গ্রাফিক ডিজাইন হচ্ছে এমন একটা সৃজনশীল প্রক্রিয়া যেটি আমরা আমাদের চারপাশেই প্রতিনিয়ত দেখতে পাই। আমাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন, ফোনের অ্যাপ্লিকেশান এর ইন্টারফেস থেকে শুরু করে আমাদের আধুনিক ডিজাইনের কাপড়, বই, ম্যাগাজিন, ওয়েবসাইট ইত্যাদি এমন কোনো ক্ষেত্র নেই যেখানে গ্রাফিক ডিজাইনের ছোঁয়া নেই! বর্তমানে এইটার চাহিদা বলতে গেলে আকাশ ছোঁয়া। অনলাইন মার্কেটপ্লেসে একজন গ্রাফিক ডিজাইনারের চাহিদা অনেক। যে কোনো প্রোডাক্টের ইন্টারফেস ডিজাইনের জন্য গ্রাফিক ডিজাইনারের বিকল্প নেই। আমাদের দেশের অনেক ছেলে-মেয়ে তাদের করা ডিজাইন দিয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অনলাইন মার্কেটপ্লেস এবং আয় করছে হাজার হাজার, লাখ লাখ টাকা। বর্তমানে আমাদের দেশেও সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গ্রাফিক ডিজাইনার একটি অপরিহার্য এবং সন্মানজনক পদ। তাই এইটার কাজের ক্ষেত্র যে কত বেশি তা বুঝতেই পারছেন।
কিন্তু সৃজনশীল প্রতিভা থাকার পরেও অনেকেই মাঝ পথে হারিয়ে যাচ্ছেন অথবা কিভাবে কি করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না। তাই আমরা দক্ষ সৃজনশীল গ্রাফিক ডিজাইনার তৈরি করার লক্ষে আমাদের এই কর্মশালা। আমাদের উন্নত প্রশিক্ষন এবং সুপরিকল্পিত গাইডলাইনই পারে আপনাকে আপনার লক্ষে পৌছে দিতে। তাই দেরি না করে আজই যোগাযোগ করুন এবং ভর্তি হয়ে যান এই কোর্সে এবং হয়ে যান একজন প্রফেশনাল গ্রাফিক ডিজাইনার। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন এই লিঙ্কেhttps://www.facebook.com/freelancingtrainingingazipur/ ,

আমাদের অফিসের ঠিকানা:
নন্দীভবন – (৩য়তলা),
(ইসলামীব্যাংকসংলগ্ন, গাজীপুরইঞ্জিনিয়ারিংইনষ্টিটিউটএরপাশের বিল্ডিং),
চন্দনাচৌরাস্তা, জয়দেবপুর, গাজীপুর।
হ্যালো :০১৯৭৩৯০০৯৩৩,০১৯৭০৯০০৯৩৩
বিস্তারিতজানতেভিজিটকরুন: www.uit.com.bd
ফেসবুক গ্রুপঃ https://www.facebook.com/uttarainfotech/ ,
https://www.facebook.com/freelancingtrainingingazipur/ ,
ইউটিউব চ্যানেলঃ https://www.youtube.com/watch
ইমেইলঃ admin@uit.com.bd
ভাল লাগলে বন্ধুদেরকে জানিয়ে দিতে শেয়ার করে দিন এখুনি। ফ্রিল্যান্সিং এ আমাদের ফলো করবেন আশা করি ।

কাজ করেত চাইেল আপনার ইচ্ছাই যেথষ্ট অনলাইেন কাজ করুন আয় করুন

business-people-working-on-computer-web-header
আধুনিক সমাজে তথ্যের গতিশীল প্রবাহ এবং যোগাযোগের প্রায় পুরোটাই নেটওয়ার্ক তথা ইন্টারনেট নির্ভর। বর্তমানে শিক্ষা, ব্যবস্যা-বানিজ্য, সংবাদ আদান-প্রদান, নিউজ মিডিয়া, টিভি মিডিয়া, সোস্যাল নেটওয়ার্ক, সাহিত্য-সংস্কৃতি এমনকি গল্প আড্ডা পর্যন্ত ইন্টারনেট তথা ওয়েবসাইট নির্ভর হয়ে পড়ছে।
 
আমাদের চাহিদা, সময়ের দাবি এবং আধুনিকতার সৃজনশীল প্রয়োগের জন্যই আমাদেরকে ওয়েব নির্ভর হতে হচ্ছে। আর এ সকল কর্মকান্ডের বাস্তবিক রূপ হচ্ছে ওয়েবসাইট যা আমাদের কার্যাবলী এবং প্রয়োজন মিটিয়ে চলেছে নিরবিচ্ছিন্নভাবে। তাই স্বাভাবিক ভাবেই বোঝা যাচ্ছে যে ওয়েব সাইট আমাদের বর্তমান সময়ে কতটা জরুরী তাহলে ক্যারিয়ার হিসেবে ওয়েব ডেভেলপমেন্টকে বেছে নেয়ার ক্ষেত্রে কোন সন্ধেহের অবকাশ নেই। ওয়েব ডেভলপমেন্ট একটা সৃজনশীল কাজ এখানে এডুকেশনাল ব্যাকগ্রাউন্ড কোন বিষয় নয় বরং আগ্রহ, ইচ্ছা, ধর্য্য, জানা এবং শেখার আকাংখ্যা,সৃজনশীলতা, দক্ষতা প্রমানের ইচ্ছা, স্বধীনভাবে কাজ করার ইচ্ছা, নতুন কিছু সৃষ্টির আকাংখ্যা ইত্যাদি বিষয়গুলো প্রধান নিয়ামক হিসেবে কাজ করে।
 
ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কি ?
 
ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোর্সওয়েব ডেভেলপমেন্ট হচ্ছে ওয়েবসাইটের জন্য এপ্লিকেশন তৈরী করা। যেমন লগিন সিস্টেম, নিউজলেটার সাইনআপ, পেজিনেশন, ফাইল আপলোড করে ডেটাবেসে সেভ করা,ইমেজ ম্যানিপুলেশন, যদি সাইটে বিজ্ঞাপন থাকে তাহলে প্রতিবার পেজ লোড হওয়ার সময় বিজ্ঞাপনের পরিবর্তন এগুলি এপ্লিকেশন, ওয়েব এপ্লিকেশন। এসব ছারাও
এধরনের আরো হাজারো এপ্লিকেশন আছে, ওয়েব ডেভেলপারকে এসব এপ্লিকেশন তৈরী করতে হবে।যদি ফ্রিল্যান্সিং করেন তাহলে ক্লাইন্টের চাহিদা অনুযায়ী এমনও এপ্লিকেশন তৈরী করা লাগতে পারে যার অস্তিত্ব পৃথিবীতে নেই।এই বিষয়টি বেশি চ্যালেন্জিং এবং ডাইনামিক। অর্থ্যাৎ আপনাকে এপ্লিকেশন ডিজাইন করতে হবে।তাই ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কে আরও সুনির্দিষ্ট করে বলা যায় ওয়েব এপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট।
 
ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কেন শিখবেন ?
 
অনলাইনে উপার্জনের যতগুলো মাধ্যম রয়েছে, তন্মধ্যে ওয়েব সাইট ডিজাইন ও ডেভলপমেন্ট হচ্ছে সবচেয়ে চাহিদাপূর্ণ ক্ষেত্র। সমগ্র বিশ্বের ছোট-বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তিগত, সামাজিক প্রায় সকলেই ক্রমশ ইন্টারনেটের দিকে ঝুকেঁ পড়ছে। সকলেই চাচ্ছে, তার একটি ভার্চুয়াল ঠিকানা হোক। ফলে এ সম্পর্কিত কাজের জন্য ওয়েব ডিজাইনের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ কারণে, ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটে যত ধরনের কাজ রয়েছে, তার মধ্যে ওয়েব সাইট ডিজাইন ও ডেভলপমেন্টের কাজই সর্বাধিক।
একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভলপারের কাজের ক্ষেত্র অনলাইনে এতটাই বিস্তৃত যে, ফ্রিল্যান্সিং এর বিশাল বাজেটের কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারে, ব্লগিং করে উপার্জন করতে পারে, বিভিন্ন অনলাইন শপিং মার্কেটে নিজের তৈরিকৃত ডিজাইন জমা দিয়ে উপার্জন করতে পারে। এ ধরনের বহুমূখী উপার্জনের রাস্তা খুলে যায় একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভলপারের জন্য ।
 
ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলিতে রয়েছে ওয়েব ডেভেলপারের ব্যাপক কাজের চাহিদা। একজন ফ্রিল্যান্সার প্রতি ঘন্টায় ১০ থেকে ১২ ডলার রেটে কাজ শুরু করতে পারে। তবে সময়ের সাথে সাথে সে যদি সফলতার সঙ্গে কাজ করতে পারে তাহলে সে তার রেট ভবিষ্যতে আরো বাড়িয়ে নিতে পারবে। একজন অভিজ্ঞ ওয়েব ডেভেলপারের ঘন্টায় ৮০ থেকে ১০০ ডলার রেটেও কাজ করতে পারে। প্রত্যেকদিন যদি কোন ডেভেলপার দিনে ৮ ঘন্টা কাজ করে তাহলেও তার আয় কোথায় গিয়ে দাড়ায সেটি সহজেই অনুমেয়।
 
কোর্সটিতে যা থাকবেঃ
ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোর্স
 
১. থিম বা টেম্পলেট ডিজাইন ।
২. পি এস ডি টু এইচটিএমএল ।
২. পেইজ, মেনু তৈরি কন্টেন্ট তৈরি এবং পোস্ট পদ্ধতি ।
৩. প্লাগিন ইন্সটলেসন এবং অ্যাডমিন প্যানেলের ব্যবহার ।
৪. ইমেজ ইনপুট, ছবির গ্যালারি, অডিও, ভিডিও ইত্যাদি সাইটে যোগ করার প্রক্রিয়া ।
৫. স্পাম প্রোটেকশন সিস্টেম ।
৬. ডাটাবেজ মেন্টেনেন্স ও ব্যাকআপ ।
৭. হিট কাউন্টার ও ভিজটর ট্র্যাকিং ।
৮. ইউজার বেইজ কন্ট্রোল প্যানেল ।
৯. ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টোমাইজেসন (থিম এবং প্লাগিন)
১০. সিএমএস কন্ট্রোল এবং অ্যাডভান্স ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং ম্যানেজমেন্ট ।
১২. ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপমেন্ট
১১. সি প্যানেল ব্যবহার করে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটলেসন ।
 
আমাদের অফিসের ঠিকানা:
উওরা ইনফোটেক
৮৭, বিএনএসসেন্টার, ৬ষ্ঠতলা(রুমনং-৬১০/এ, এবং৬১৪),
সেক্টর # ০৭, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
হ্যালো :০১৯৩৫৯০০৯৩৩, ০১৬১১৯০০৯৩৩
বিস্তারিতজানতেভিজিটকরুন: www.uttarainfotech.com
অথবা
নন্দীভবন – (৩য়তলা),
(ইসলামীব্যাংকসংলগ্ন, গাজীপুরইঞ্জিনিয়ারিংইনষ্টিটিউটএরপাশের বিল্ডিং),
চন্দনাচৌরাস্তা, জয়দেবপুর, গাজীপুর।
হ্যালো :০১৯৭৩৯০০৯৩৩
বিস্তারিতজানতেভিজিটকরুন: www.uit.com.bd